নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

সোমবার,

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

জেলা প্রশাসকের কাছে হকারদের স্বারকলিপি, তালিকা জমা দেয়ার নির্দেশ 

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:১৭:৫৮, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

জেলা প্রশাসকের কাছে হকারদের স্বারকলিপি, তালিকা জমা দেয়ার নির্দেশ 

হকার পুনর্বহাল ও পুনর্বাসনের দাবিতে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাহমুদুল হকের কাছে স্বারকলিপি দিয়েছেন হকার নেতারা। আর আগামী রবিবারের মধ্যে হকারদের আইডি কার্ড ও মোবাইল নম্বরসহ তালিকা জমা দেয়ার নির্দেশ নিয়েছেন জেলা প্রশাসক। 

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল গিয়ে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাহমুদুল হকের সঙ্গে দেখা করেন এবং হকারদের সমস্যার কথা তুলে ধরেন। পরে জেলা প্রশাসক  কাছে তাদের স্মারকলিপি প্রদান করেন। 

এসময়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাহমুদুল হক সাংবাদিকদের বলেন, আমরা ইতিমধ্যে হকার নেতৃবৃন্দের সঙ্গে কথা বলেছি। ইতিপূর্বে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ৬৭৪জন হকারকে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করে দিয়েছিল।

আজকে সকালে আমি ও পুলিশ সুপার সাহেব দু'জনই মিলে হকার্স মার্কেটে গিয়েছি। আমরা দেখলাম অধিকাংশ হকারই সেখানে থাকেন না। তারা বললেন অনেক তারা দোকান ভাড়া ও বিক্রি করে দিয়েছে। 

তিনি আরও বলেন, আমরা হকার নেতৃবৃন্দের কাছে যারা নারায়ণগঞ্জের হকার, নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা তাদের তালিকা চেয়েছি। আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি রবিবারের মধ্যে আইডি কার্ড ও মোবাইল নম্বরসহ তালিকা জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এরপর আমরা যাচাই-বাছাই করে কতজন নারায়ণগঞ্জের নাগরিক রয়েছে, তাদেরকে কিভাবে পুনর্বাসন করা যায় এইনিয়ে ভাবসি।

হকাররা লিখিত স্মারকলিপিতে উল্লেখ করেন যে- আমরা অতিশয় দরিদ্র শ্রেনির মানুষ, দির্ঘদিন যাবৎ নারায়নগঞ্জের বঙ্গবন্ধু সড়কস অন্যান্য সড়কে জিবিকা নির্বাহের একান্ত তাগিদে সন্তানসহ পরিবারের মুখে অন্ন তুলে দিতে, সামান্য পরিসরে পসরানিয়ে রাস্তারধারে বসে রোদ- বৃষ্টি-ঝড়- বাদল পুলিশের লাঠির আঘাত উপেক্ষাকরে হকারিকরে কোনমতে জিবিকা নির্বাহকলে আসছি।

গত ৩ ফেব্রুয়ারি শনিবার নারায়নগঞ্জ প্রেসক্লাবের আয়োজনে একটি গোলটেবিল -মতবিনিময় সভায় নারায়ণগঞ্জ- ৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ -৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান এমপি মহোদয় এবং সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র মহোদয়সহ অন্যান্য সম্মানীত ব্যক্তিবর্গসহ, আপনি উক্তস্থানে অতিথির আসনে অধিষ্ঠিত ছিলেন।

উক্ত মতবিনিময় সভায় এক পর্যায়ে হকারদের বিষয়টি উঠে আসে, যাহা আমরা গনমাধ্যমসহ বিশ্বস্তসুত্রে জানতে পারি এবং হকারদের শহরের কোথাও না-বসানোর সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন।

পরবর্তিতে মাননীয় পুলিশ সুপার মহোদয় আমাদেরনে তাহার কক্ষে ডেকে উক্ত সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেন, যাহা-আমাদের মাথায় আকাশ ভেংগে পড়ার সামিল। উক্ত দিন হইতে আমরা হকাররা আপনাদের মুখের দিকে তাকিয়ে ও সম্মানার্থে কোথাও আমরা বসি নাই।

বর্তমানে দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বমূখী হওয়ার কারণে, পরিবার নিয়ে এমনিতেই চরম সংকটময়কাল অতিবাহিত করছি, তাহার মধ্যে মরার উপর খাড়ার ঘা আমাদের উচ্ছেদের সিদ্ধান্তে আমরা গভীর হতাশার মধ্যে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছি। এমত অবস্থায় আপনার সহযোগিতা আমাদের নিকট একান্তভাবে কাম্য।

আপনার হস্তক্ষেপ ও মধ্যস্থতায়, মাননীয় জনপ্রতিনীধিদের নিয়ে উদ্ভুত সমস্যা সুচারুভাবে সমাধান এবং আপনার সরকারের ভাবমুর্তি উজ্জলহবে বলে আশা করছি।

আমরা আশা করছি, শহরের বঙ্গবন্ধু রোড সহ অন্যান্য সড়কে অত্যান্ত শৃঙ্খলারসাথে জনসাধারণের চলাচলের বিঘ্ন-না-ঘটিয়ে, পূর্বের মাননীয় মেয়র মহোদয় ও অন্যান্য কাউন্সিলরদের ফর্মুলামতে অথবা আপনার মাধ্যমে একটি বিকল্প পথে আমাদের একটি বেচেঁ থাকার উপায় আপনার মাধ্যমে রচিত হবে বলে আশা করছি।

স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন, শ্রমিকনেতা হাফিজুল ইসলাম, হকার নেতা আসাদুজ্জামান আসাদ, আঃ রহিম মুন্সী, মো. পলাশ, মো. রানা। 

স্মারকলিপি প্রদান শেষে হকার নেতা আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, আমরা আজকে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি পেশ করলাম। আমরা এসপি, মেয়র, এমপি সেলিম ওসমান এবং এমপি শামীম ওসমানের কাছেও স্মারকলিপি  দিবো। 

তিনি আরও বলেন,  জেলা প্রশাসক আমাদেরকে বললেন আগামী রবিবারের মধ্যে হকারদের তালিকা করে জমা দেয়ার জন্য। তবে আমরা শংকায় রয়েছি। আগেও আমরা হকারদের আইডি কার্ড ও মোবাইল নম্বরসহ তালিকা জমা দিয়েছিলাম। 

এরপর আমাদের হকারদেরকে হয়রানিসহ দোকান দেয়ার নামে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। সবকিছু চিন্তাভাবনা করেই আমরা তালিকা জমা দিবো। 

এদিকে সোমবার  সকাল দশটায় হকার পুনর্বহাল ও পুনর্বাসনের দাবিতে চাষাড়া শহীদ মিনার হকাররা বিক্ষোভ সমাবেশ করে। পরে দুপুর বারোটার দিকে চাষাড়া শহীদ মিনার থেকে বিশাল মিছিল নিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সামনে এসে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

এসময়ে ডিসি অফিসের প্রধান ফটকের সামনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোর অবস্থানে থাকতে দেখা যায়। 
 

সম্পর্কিত বিষয়: