নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

মঙ্গলবার,

১৮ জানুয়ারি ২০২২

প্রচারণার শেষ সময়ে বন্দরে ব্যাপক শোডাউন তৈমূরের

নারায়ণগঞ্জ টাইমস:

প্রকাশিত:২৩:২২, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

প্রচারণার শেষ সময়ে বন্দরে ব্যাপক শোডাউন তৈমূরের

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বন্দরে শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) জুম্মার নামাজের পর ব্যাপক শোডাউন করেছেন স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার (প্রতীক হাতি)। কয়েক হাজার নেতাকর্মী, সমর্থক ও বন্দরবাসী শোডাউনে অংশ নেয়। শুধু তাই নয়, বন্দরের জাতীয় পাটির একাধিক চেয়ারম্যান ও তাদের কর্মী সমর্থকরাও তৈমূরের শোডাউনে যোগ দিয়েছে। এসময় ভিন্ন এক আমেজ তৈরী হয় শোডাউনে। নেতাকর্মীরা বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে নেচে-গেয়ে এলাকাবাসীর কাছে ভোট প্রার্থনা করেন। এসময় একটি খোলা জিপে দাড়িয়ে দুই হাত উপরে তুলে বন্দরবাসীর দোয়া ও ভোট চান তৈমূর। একটিবার সুয়োগ চান তিনি বন্দরবাসীর কছে। তৈমূর দুই হাত উপরে তুলে ভোট প্রার্থনা রাস্তার দুইপাশে ও বাড়ির ছাদে দাড়িয়ে থাকা নারী-পুরুষকে আবেগ আপ্লুত করে তুলেছে।  অনেকে ছাদের উপর থেকে ফুলে পাপড়ী ছিটিয়ে দেন তৈমূরের উপর। জুম্মার নামাজের পর ২২ নাম্বার ওয়ার্ডের সিরাজ উদ দৌলা মাঠে সমবেত হতে থাকে নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। বন্দরের বিভিন্ন এলাকা থেকে খন্ড খন্ড মিছিল গিয়ে যুক্ত হয় ওই মাঠে। শুক্রবার  কদমরসুল দরগা জিয়ারত ও  জুম্মার নামাজ আদায় শেষে ২২ নাম্বার ওয়ার্ডে যান তৈমূর আলম।  বিশাল মিছিল ২২ নং ওয়ার্ড ছাড়াও বিভিন্ন এলাকা পদক্ষিন করেন। 


বন্দরবাসীর উদ্দেশ্যে তৈমূর বলেন, আমাকে একবার সুযোগ দিন। আমি নির্বাচিত হলে আপনাদের গোলাম হয়ে সেবা দিবো। বন্দর আর শহরের মধ্যে কোন ভেদাভেদ থাকবে না। নগরভবন সবার জন্য উম্মুক্ত থাকবে। কোন সিন্ডিকেট থাকবে না। শতভাগ নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা হবে। ট্যাক্স কমিয়ে সহনশীল অবস্থায় নিয়ে আসবো। বাড়তি করের চাপ থাকবে না। নগরবাসীর কাছে দায়বদ্ধতা থাকবে।


এদিকে বন্দরের ৯টি ওয়ার্ডে আলোচনা ছড়িয়ে পড়েছে তৈমূর আলমের শোডাউন নিয়ে। এতো মানুষের উপস্থিতি ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলাবলি করেন এবার বন্দরে হাতির জোয়ার উঠেছে।