নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

শুক্রবার,

২১ জুন ২০২৪

হুইপ বাবুর সঙ্গে দিপুর অন্তরঙ্গ হাস্যোজ্জ্বল ছবি, সমালোচনার ঝড়

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:১৪:১৭, ২৭ মে ২০২৪

হুইপ বাবুর সঙ্গে দিপুর অন্তরঙ্গ হাস্যোজ্জ্বল ছবি, সমালোচনার ঝড়

নারায়ণগঞ্জ-২ আসনে আওয়ামী লীগের সরকারদলীয় সংসদ ও জাতীয় সংসদের হুইপ নজরুল ইসলাম বাবুর পরিবারের সঙ্গে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য রূপগঞ্জের মোস্তাফিজুর রহমান দিপু ভূঁইয়ার পরিবারের সম্প্রতি তাদের একটি অন্তরঙ্গ হাস্যোজ্জ্বল ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে। আর এই অন্তরঙ্গ হাস্যোজ্জ্বল ছবি নিয়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে সমালোচনার ঝড় বইছে। 

সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে হুইপ নজরুল ইসলাম বাবু ও তার সহধর্মিনী এবং বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান দিপু ভূঁইয়া ও তার সহধর্মিনী একই ফ্রেমে হাস্যোজ্জ্বল মুখে এ ছবি তুলেছেন। 

ছবিতে দেখা যায়, হুইপ বাবুর সহধর্মিণীকে দিপু ভূঁইয়ার সহধর্মিনী জড়িয়ে ধরেছেন এবং হুইপ বাবু ও দিপু ভূঁইয়া পাশাপাশি অন্তর্গত ভাবে দাড়িয়ে এক ফ্রেমে ছবি তুলেন। আর এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে আসার পরেই শুরু হয় সমালোচনা ঝড়।

এনিয়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতাকর্মীরা সমালোচনা করে বলেন, বিগত ২৮ অক্টোবর থেকে শুরু করে ৭জানুয়ারির ডামি নির্বাচন বাতিল ও বর্জনের সরকার বিরোধী অবরোধ এবং হরতাল মতো বড় বড় আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে দেখা যায়নি দিপু ভূঁইয়াকে।

সেই সময়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির দায়িত্বশীল নেতারা প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে থাকলেও দিপু ভূঁইয়া ছিলেন আত্মগোপনে। 

শুধু তাই নয় দিপু ভূঁইয়া তার অনুসারী নেতাকর্মীদেরকেও সেই সসয়ে রাজপথে নামতে দেয়নি বরং তিনি স্থানীয় এমপির সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখে নেতাকর্মীদেরকে হামলা ও গ্রেফতার থেকে রক্ষা করেছেন। এবং জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একটি প্রার্থীর পক্ষে কাজও করতে নেতাকর্মীদেরকে বলেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। 

তাঁরা আরও বলেন, এখন একে একে থলের বিড়াল বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। বিএনপির বিগত আন্দোলন সংগ্রামে কারা রাজপথে ছিলেন আর কারা সরকার দলীয় এমপির সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখে রাজপথ ছেড়ে আত্মগোপনে ছিলেন।

দিপু ভূঁইয়ার এই ছবিই প্রমাণ করে যে তিনি বিগত আন্দোলন সংগ্রাম কেনো রাজপথে ছিলেন না এবং তার অনুসারী নেতাকর্মীদেরকেও রাজপথে নামতে দেয়নি। 

সুতরাং যারা সরকার দলীয় এমপির সঙ্গে আঁতাত করে বিএনপির রাজনীতি করে এমন সুবিধাবাদী নেতাদেরকে দল থেকে বহিষ্কার করার দাবি জানাচ্ছি। আর তা নাহলে তাঁদের কারনে দলের পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে দলের নেতাকর্মীরাও।