নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

বুধবার,

২৯ মে ২০২৪

বন্দরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলায় আহত ২

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:২১:১৫, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

বন্দরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলায় আহত ২

বন্দরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী হামলায় ২ জন রক্তাক্ত জখম হয়েছে। আহতরা হলো বন্দর উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের মালিবাগ উত্তরপাড়া এলাকার মৃত আব্দুর রব মিয়ার ছেলে দিনমজুর আব্দুল লতিফ (৩৭) ও একই এলাকার মৃত জয়নাল আবেদীন মিয়ার ছেলে সাহানুর (৪৫)। 

স্থানীয় এলাকাবাসী আহতদের মারাত্মক জখম অবস্থায় উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। গত রোববার (১৪ এপ্রিল) সকাল ১০টায় বন্দর উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের মালিবাগ উত্তরপাড়া এলাকায় এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাটি ঘটে। 

সংঘর্ষের ঘটনার খবর পেয়ে সরজমিন ঘুরে এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানাগেছে, বন্দর উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের মালিবাগ উত্তরপাড়া এলাকার  মৃত আবিল হোসেন ওরফে সোনা মিয়ার ছেলে শাহীন মিয়া ও তার ২ সন্ত্রাসী ছেলে তারিফ ও তামিমগং একই এলাকার মৃত আব্দুর রব মিয়ার ছেলে আব্দুল লতিফ মিয়ার জায়গা জোর পূর্বক ভাবে দখল করে বহুতল ভবন নির্মান করে আসছে। 

এর ধারাবাহিকতায় গত রোববার সকাল ১০টায় সন্ত্রাসী তারিফ ও তার ছোট ভাই তামিম নির্মানাধীন ভবনের ছাদে ডাব খেয়ে ডাবের খোসা আমার বড় ভাই আব্দুল লতিফ মিয়ার উপরে ফেলে। 

এ ঘটনায় দিনমজুর আব্দুল লতিফ মিয়া প্রতিবাদ করলে ওই সময় উল্লেখিত সন্ত্রাসী দুই ভাই  ক্ষিপ্ত হয়ে ডাব খাওয়ার দা দিয়ে মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে পকেটে ধাকা নগদ ৭ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।  

আহতের চিৎকারের শব্দ পেয়ে একই এলাকার মৃত জয়নাল আবেদীন মিয়ার ছেলে সাহানুর মিয়া এগিয়ে আসলে ওই সময় শাহীন ও তার স্ত্রী নাজমা  ওরফে নাজু ও দেবর মোসলেউদ্দিন ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো ছুরি দিয়ে তাকেও বেদম ভাবে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে আহত আব্দুল লতিফ মিয়ার ছোট বোন মাহামুদা বেগম জানান, সন্ত্রাসী  হামলায় আমার দুই ভাই রক্তাক্ত জখম হয়েছে। এ ঘটনায় আমরা থানায় গেলে থানা পুলিশ মামলা না নিয়ে আমার আহত ভাইকে  থানা থেকে বের করে দেয়।

এ ব্যাপারে বন্দর থানার সেকেন্ড অফিসার সাইফুল আলম পাটোয়ারী সাথে আলাপ কালে তিনি জানান, অভিযোগ না করলে  কার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করব। তারা থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারব। থানা থেকে বের করে দেওয়া বিষয়টি সম্পর্ন মিথ্যা ভিত্তিহীন।