নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

মঙ্গলবার,

২৮ মে ২০২৪

নারায়ণগঞ্জে ১৫ ঘন্টায় ৪টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

নারায়ণগঞ্জ টাইমস:

প্রকাশিত:২১:০৩, ২ মার্চ ২০২৪

নারায়ণগঞ্জে ১৫ ঘন্টায় ৪টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

নারায়ণগঞ্জ মাত্র ১৫ ঘন্টার ব্যবধানে পৃথক চারটি সড়ক দুর্ঘটনায় নারী, শিশুসহ ৪ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে তিতাসের ৩০ কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ ৩৩ জন। শুক্রবার (১ মার্চ) সন্ধ্যা ৭টা থেকে শনিবার (২ মার্চ) সকাল ১০ পর্যন্ত জেলার ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ, রূপগঞ্জ ও সোনারগাঁয়ে দুর্ঘটনাগুলো ঘটেছে। 


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম এলাকায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার ধাক্কায় আহত হয় অজ্ঞাত পরিচয় (১২) এক কিশোর। রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে সে মারা যায়।


আহত কিশোরকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া পথচারী মামুন মিয়া জানান, সন্ধ্যা ৭টার দিকে কিশোরটি বাইসাইকেলে যাওয়ার সময় দ্রুতগামী একটি অটোরিকশা তাকে ধাক্কা দিলে সে গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নিহত কিশোরের সাইকেলে গামছা দিয়ে বাধা অবস্থায় দুটি বাটিতে ভাত ও তরকারি ছিল।


ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক সৈয়দ আজিজুল হক জানান, এ ঘটনায় অটোরিক্সা চালক জুয়েল (২০)কে আটক করে ৫৪ ধারায় আদালতে পাঠানো হয়েছে। এবং নিহতের পরিচয় সনাক্তে কাজ করছে পুলিশ।


এদিকে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক পারাপারের সময়ে দ্রুতগামী ট্রাকের ধাক্কায় হনুফা বেগম (৭৫) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হন। তার গ্রামের বাড়ি মুন্সিগঞ্জে। এ সময় ঘাতক ট্রাকটি সড়কের পাশে থাকা একটি অটোরিকশাকে ধাক্কা দিলে অটোরিকশার চালক হেলাল ও দুই যাত্রী নারী ও শিশু আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।  


কাঁচপুর হাইওয়ে থানার শিমরাইল ক্যাম্পের ইনচার্জ (টিআই) একেএম শরিফুউদ্দিন জানান, দ্রুতগামী ট্রাকটি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে এ দূর্ঘটনা ঘটায়। ট্রাক ও এর চাল মোজাম্মেলকে আটক করা হয়েছে।


অপরদিকে শনিবার সকাল ১০টার দিকে সোনারগাঁয়ে মুরগাপাড়া এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় সোহাগ (১৬) নামে এক কিশোর মারাত্মক আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুপুর ১২টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া।  


অন্যদিকে শনিবার সকালে রূপগঞ্জ উপজেলার পূর্বাচল ফায়ার সার্ভিস কার্যালয়ের সামনের সার্ভিস সড়কে তিতাস গ্যাসের নারায়ণগঞ্জ শাখার কর্মকর্তা কর্মচারীদের পিকনিকের বাস পূৃর্বাচলের শেখ হাসিনা সরণির (কাঞ্চন-কুড়িল বিশ্বরোড সড়ক) আন্ডারপাসের ছাদে ধাক্কা লেগে এক শিশু নিহত ও  ৩০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ২২ জনকে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় ১০ জনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন তারা। আহতের মধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানান কর্তব্যরত চিকিৎসক।


ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের (ঢাকা জোন-৩) উপ সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ সফিকুল ইসলাম জানান, বিআরটিসির একটি দোতলা পিকনিকের বাস পূর্বাচল সী-সেল পার্কে যাওয়ার সময় তিনশ ফিটে তিন নম্বর ব্রিজের আন্ডারপাসে ধাক্কা খায়। এতে বাসটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। খবর পেয়ে পূর্বাচল ফায়ার স্টেশনের টিম দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে আহতদের উদ্ধার করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। বাসের যাত্রীরা তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিভিশন কোম্পানির কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পরিবারের সদস্য ছিলেন।

 

তিতাস গ্যাস এন্ড ট্রান্সমিশনের নারায়ণগঞ্জ এর ডিজিএম প্রকৌশলী মামুন আর রশীদ বলেন, ‘পিকনিক বাস দুর্ঘটনায় আমাদের এক সহকর্মীর সন্তান মারা গেছে। তার নাম আখিল (১২)। সে তার মা নিলুফার সঙ্গে পিকনিকে যাচ্ছিলো। নিলুফাও গুরতর আহত হয়েছেন। তার একটি পা কাটা গেছে।’ 


তিতাস গ্যাস এন্ড ট্রান্সমিশনের নারায়ণগঞ্জ শাখার সিবিএ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আয়েজউদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রতি বছরের ন্যায় শনিবার আমাদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বার্ষিক পিকনিক ছিলো। সকালে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া থেকে তিতাসের নারায়ণগঞ্জ ডিভিশনের কর্মকর্তা, কর্মচারী ও তাদের পরিবারের মোট ৫০০ সদস্য নিয়ে রূপগঞ্জের সী-সেল পার্কের উদ্দেশ্যে রওয়া হই। একটি বাস সড়কের আন্ডার পাসের ছাদে ধাক্কা লেগে দুর্ঘটনার শিকার হয়। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।


আহতরা হলেন-তিতাস কর্মকর্তা রবিন লাল, শাকিল, শাভা, মিনহাজ, শরিফুল, নিলুফা, মনোয়ারা, রেহেনা, শুভ্রত, তানজিম, নজরুল ইসলাম, সুমাইয়া, শিরিন আক্তার, সর্ণা রানী, তানিয়া, জেরিন, শাহনাজ, আফরিনসহ অন্তত ৩০ জন। আহতদের প্রথমে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় সেখান থেকে ১০ জনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ এবং নিলুফা ও তার ছেলে আখিলকে পঙ্গু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আখিল মারা যায়।
রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপঙ্কর চন্দ্র সাহা বলেন, এখন পর্যন্ত একজন শিশু নিহত হয়েছে।