নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

বুধবার,

১০ আগস্ট ২০২২

ফতুল্লায় মহিলা মেম্বারের ভাইয়ের বর্বরতা, দিনভর যুবককে নির্যাতন

নারায়ণগঞ্জ টাইমস:

প্রকাশিত:১৭:২৭, ২ জুলাই ২০২২

ফতুল্লায় মহিলা মেম্বারের ভাইয়ের বর্বরতা, দিনভর যুবককে নির্যাতন

ফতুল্লায় চোর আখ্যা দিয়ে এক সিএনজি চালককে আটকে রেখে দিনভর মধ্যযুগীয় কায়দায়  নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

নির্যাতিত যুবকের স্ত্রী শুক্রবার (১ জুলাই) রাত ১১ টার দিকে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে  নির্যাতিত যুব কে উদ্ধার করে । তবে নির্যাতনের ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। 

নির্যাতিত যুবক মোঃ সেলিম (৩৭) পেশায় সিএনজি চালক। 

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (১ জুলাই) ফতুল্লা মডেল থানার পাগলা শাহী বাজার ব্রিজ এলাকায়।

 

জানা যায়, নির্যাতিত যুবক মোঃ সেলিম ঢাকার কদমতলী থানা এলাকায় বসবাস করে। শুক্রবার সকাল আটটার দিকে  পাগলা শাহীবাজারস্থ শাহী বাজার ব্রিজ এলাকায় সিএনজি চালানোর জন্য গেলে অনিক, নুর মোহাম্মদ, নুরে আলম ওরফে পেদা, তানভীরসহ কয়েকজন যুবক সেলিমকে অটোরিক্সা চোর আখ্যায়িত করে আলাউদ্দিন ডাক্তারের বাড়ীতে নিয়ে গিয়ে দিনভর নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে সিএনজি চালক সেলিমের স্ত্রী কে যুবকরা ফোন করে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা নিয়ে এসে তার স্বামীকে ছাড়িয়ে নিতে বলে। স্ত্রী ঘটনাস্থলে এলেও টাকা না নিয়ে আসাই যুবকরা তাকে ও মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। উপায়ন্তর না পেয়ে রাতে ফতুল্লা মডেল থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করে সিএনজি চালকের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার (৩০)।

 

অনিক ফতুল্লা থানার কুতুবপুর ইউনিয়নের ৪,৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার অনামিকা হক প্রিয়াংকার ছোট ভাই।

 

সিএনজি চালককে উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্বদানকারী ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক  মোস্তফা কামাল জানান, অনিক, তানভীর, নুর মোহাম্মদ, নুর আলমসহ বেশ কয়েক জন সকালে সিএনজি চালক কে চোর আখ্যায়িত করে রাস্তা থেকে ধরে নিয় আলাউদ্দিনের বাড়ীতে আটকে রেখে নির্যাতন করে। তাকে ছাড়িয়ে নিতে বাদীর নিকট থেকে টাকা দাবী করা হয়। বাদীকে ও মারধর করে তারা।রাতে থানায় অভিযোগ দিলে তিনি সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে আলাউদ্দিনের বাসায় অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সিএনজি চালককে সাথে নিয়ে তারা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। পুলিশ ও তাদের পিছু নিলে ফাঁকা একটি জায়গায় সিএনজি চালককে ফেলে রেখে অপহরনাকরীরা পালিয়ে যায়। সিএনজি চালককে তার পরিবারের জিম্মায় দেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জনায়।

সম্পর্কিত বিষয়: