নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

রোববার,

০২ অক্টোবর ২০২২

সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের মোহরার বিরুদ্ধে দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:১৭:৪৯, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের মোহরার বিরুদ্ধে দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ

সোনারগাঁ সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের মোহরা ইসমাইল হোসেনের বিরুদ্ধে দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ তুলে ওই অফিসের দলিল লিখকরা এ স্টেশন থেকে তাকে বদলি করার জন্য জেলা রেজিষ্ট্রারের কাছে লিখিত আবেদন করেছেন।

 

বুধবার সোনারগাঁ সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের ৭৭ জন দলিল লিখকের স্বাক্ষরিত অভিযোগ জেলা রেজিষ্টারের কাছে দিয়েছেন।   


লিখিত অভিযোগে দলিল লিখকরা উল্লেখ করেন, সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের মোহরা ইসমাঈল হোসেন এখানে যোগদানের পর থেকে তার অনিয়মের জন্য দলিল লিখক ও দলিল গ্রহিতারা ভূক্তভোগী। 

 

তিনি এখানে যোগদান করেই দলিল ডেলিভারিতে (বিলি) সরকার নির্ধারিত ফি থেকে ৫-৬ গুন টাকা বেশি আদায় করে থাকেন। তাহার দাবিকৃত টাকা না দিলেই দলিল ডেলিভারিতে গরিমসি শুরু করেন। 


তাছাড়া দলিল গ্রহিতাদের দীর্ঘদিন ঘুরিয়ে মানসিকভাবে কষ্ট প্রদান করেন। এ বিষয়টি একাধিকবার সাব রেজিষ্ট্রারকে মৌখিক অবগত করলে তিনি তাকে ডেকে এনে সতর্ক করে দেন। পরবর্তীতে তার ধারাবাহিক অনিয়ম করেই যাচ্ছে। 


এছাড়াও তিনি অন্য একজনের সনদ ব্যবহার করে দলিলও সৃজন করে থাকেন। ফলে দ্রুত তাকে সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিস থেকে বদলি করার জন্য অভিযোগ দায়ের করেন। 


সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের দলিল লিখক মো. আবু বকর জানান, মোহরা ইসমাঈল যোগদান করার পর থেকে তার অনিয়ম ও দূর্নীতির কারনে দলিল লিখকরা অসহায় হয়ে পড়েছেন।

 

অনিয়মের প্রতিবাদ করার কারনে অনেকের সঙ্গে তার বাগবিতন্ডা হয়েছে। তিনি সরকার নির্ধারিত ফি থেকে বেশি টাকা আদায় করে নিজের পকেট ভারি করছেন।


সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের দলিল লিখক নীলোৎপল রায় বলেন, বর্তমান মোহরার দাপটে আমরা অসহায় হয়ে পড়েছি। সাব রেজিষ্টারকে মৌখিক অভিযোগ করার পর সে নিজেকে সংশোধন করেননি। বরং তার আচার আচরণ বেশি উঘ্র হয়ে উঠেছে। তাকে দ্রুত বদলির দাবি করছি। 


সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের দলিল লিখক মো. কামাল হোসেন বলেন, সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে আগে যারা মোহরা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তারা খুবই সুনাম ও সততার সাথে কাজ করে গেছেন। কোন দলিল লিখক ও দলিল গ্রহিতারা হয়রানির শিকার হননি। বর্তমান মোহরার মাধ্যমে হয়রানি হতে হচ্ছে। 


সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের দলিল লিখক সমিতির সভাপতি খলিলুর রহমান বলেন, মোহরা ইসমাইল যোগদান করার পর থেকেই দলিল ডেলিভারি নিতে বেগ পেতে হচ্ছে। সে নির্ধারিত ফি থেকে বেশি টাকা আদায় করে থাকেন।

 

বিভিন্ন সময়ে তার বিরুদ্ধে খারাপ আচরণের অভিযোগ রয়েছে। তার বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দূর্নীতি রোধে তাকে বদলির জন্য দলিল লিখকরা জেলা রেজিষ্ট্রারের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন। 


অভিযুক্ত সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের মোহরা ইসমাইল হোসেনে সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ মিথ্যা। ষড়যন্ত্র করে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা হচ্ছে। 


সোনারগাঁ সাব রেজিষ্ট্রার আনম বজলুর রহমান মন্ডল বলেন, দলিল লিখকরা মৌখিকভাবে আমাকে জানিয়েছেন। আমি তাকে ডেকে নিয়মের বাইরে কিছু না করার জন্য সতর্ক করেছিলাম। 


নারায়ণগঞ্জ জেলা রেজিষ্ট্রার জামিলুর রহমান বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত হবে। তদন্তে মোহরা দোষী প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সম্পর্কিত বিষয়: