নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

রোববার,

০২ অক্টোবর ২০২২

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক হাফিজের ছত্রছায়ায় সন্ত্রাসী সজু বেপরোয়

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:২১:৫৯, ৩ আগস্ট ২০২২

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক হাফিজের ছত্রছায়ায় সন্ত্রাসী সজু বেপরোয়

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান মানিকের ছত্রছায়ায় কদমতলী এলাকায় অশান্ত করে তোলেছে কিশোরগ্যাং নেতা একাধিক মামলার আসামি সন্ত্রসী তানজিম কবির সজীব ওরফে সজু। চাঁদাবাজি, জমিদখল, ছুরি, ছিনতাই ও মাদক ব্যবসাসহ বীর দর্পে নানা অপরাধ কর্মকান্ড করে বেড়াচ্ছে সজু বাহিনী। 


সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান মানিকের সাথে গভীর সখ্যতা থাকায় সজু একের পর এক অপকর্ম করেও পার পেয়ে যাচ্ছে। তার বিচারের দাবিতে এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল হলেও পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করছেন না। ভোক্তভূগীদের অভিযোগ থানায় মামলা করতে গেলে সজুর নাম বাদ দেওয়ার পরামর্শ দেয় পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রজমান। তার নাম বাদ না দিলে অধিকাংশ ঘটনায় মামলা হয়না। 


জানা গেছে, নাসিক ৭ নং ওয়ার্ডের উত্তর কদমতলী এলাকার বিএনপি নেতা মৃত হুমায়ূন কবিরের ছেলে তানজিম কবির সজীব ওরফে সজু। দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী সজু এলাকায় গড়ে তুলেছে বিশাল কিশোরগ্যাং বাহিনী। নাসিকের ৭ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর নির্বাচনে পরাজিত হয়েও নিজেকে জনপ্রতিনিধি পরিচয় দেয় সজু। 


স্থানীয়দের অভিযোগ, সম্প্রতি সময়ে কদমতলী এলাকার মূর্তমান আতঙ্ক সজু। এলাকায় ত্রাসের রাজস্ব কায়েম করেছে এই বাহিনী। একের পর এক ঘটাচ্ছে নানা অপ্রিতিকর ঘটনা। এবাহিনীর হামলা মারধরের শিকার হচ্ছে নিরীহ মানুষ। সজু বাহিনী এতটাই বেপরোয়া যে পুলিশের সামনেই এসএম টুটুল নামে এক ব্যক্তিকে মারধর ও গাড়ি ভাংচুর করে। 


এসময় সজু পুলিশকেও গালাগালি করে বলে প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে। এঘটনায় থানায় মামলা হলেও পুলিশ সজুর টিকিটিও স্পর্শ করেনি। ফলে বীর দর্পে চাঁদাবাজি, ছিনতাই ও অন্যের জমি দখলসহ নানা অপকর্ম করছে সজু বাহিনী। বিএনপি পরিবারের সদস্য হয়েও নিজেকে যুবলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে দলীয় ক্ষমতার দাপটে এসব করছে। 


অথচ সজুর দলীয় কোন পদ নেই বলে জানা গেছে। অপকর্মের বিচার পেতে থানায় মামলা করতে গেলে পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান মানিক সন্ত্রাসী সজুর নাম এজাহার থেকে বাদ দিতে পরামর্শ দেয় বলে হামলা মারধরের শিকার আলতাফ নামে একজন ভোক্তভূগী জানায়। 


অনুসন্ধানে জানাগেছে, চলতি বছরের গত ১০ জুন রাতে গ্যাস ফিল্ড এলাকায় যুবলীগ কর্মী সাগরকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে সজু বাহিনী। গত ২২ জুলাই বিপ্লব রায় নামে এক সংখ্যালঘু যুবককে মারধর, আব্দুল হক মেম্বার নামে একজন মুক্তিযোদ্ধার বাড়ী দখলসহ বহু অভিযোগ রয়েছে সজুর বিরুদ্ধে। 


এবিষয়ে জানতে মোবাইল ফোনে সজুর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমার প্রতিপক্ষরা আমার বিরুদ্ধে অপবাদ রটাচ্ছে। একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে প্রয়োজনে থানার ওসি তদন্তের কাছে মাঝে মাঝে যাওয়া আসা করি। তবে গভীর কোন সখ্যতা নেই। 


সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান মানিক বলেন, সজু আমার আত্নীয় লাগেনা যে তার সাথে আমার ব্যক্তিগত সখ্যতা থাকবে। সজুর সাথে একটি পক্ষের মামলা চলছে। আইনি সহায়তা পেতে যেকেউ থানায় আসতে পারে।


সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মশিউর রহমান বলেন, সজুর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।