নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

সোমবার,

৩০ জানুয়ারি ২০২৩

সিদ্ধিরগঞ্জে সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার, ৩ লাখ টাকা উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:২২:৫৬, ২৩ জানুয়ারি ২০২৩

সিদ্ধিরগঞ্জে সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার, ৩ লাখ টাকা উদ্ধার

সিদ্ধিরগঞ্জে এক মোবাইল ব্যবসায়ীর গতিপথ রোধ করে নগদ অর্থ ছিনতাইকালে সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রোববার দিবাগত রাত পৌণে ১২টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি বাতেন পাড়া এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের এসআই ইয়াউর রহমান।  


গ্রেপ্তারকৃত ছিনতাইকারীরা হলো- ওই এলাকার আব্দুল বাতেনের ছেলে জাকির (৪৫), বিএনপি নেতা মোহাম্মদ আলীর ছেলে মাসুম (২৮) ও মৃত ইসমাইলের ছেলে মনির (৪৮)। এসময় তাদের হেফাজত থেকে ছিনতাইয়ের ৩ লাখ টাকা উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী আমজাদ হোসেন বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। 


মামলা সূত্রে জানা যায়, বাদী আজাদ হোসেন (৩৩) মোবাইল ব্যবসায়ী। তার কাছে পাওনা টাকা নিতে তার বাসায় আসেন আব্দুর রশিদ নামের আরেক ব্যবসায়ী। পরে সে রাত পৌনে ১২টার দিকে পাওনাদারকে ওই  টাকা বুঝিয়ে দেওয়ার পর তাকে গাড়িতে উঠিয়ে দেওয়ার জন্যে রওনা দেয়। 


এ সময় মিজমিজি বাতানপাড়া কবরস্থান রোডের জয়নাল মার্কেটের মোড়ে পৌঁছালে গ্রেপ্তারকৃতরাসহ অজ্ঞাত ৩/৪ জন তাদের গতিরোধ করে মারধর করে সঙ্গে থাকা ৭ লাখ ৩৪ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। 


এক পর্যায়ে তারা হৈ-হুল্লোড় করলে থানা পুলিশের টহলে থাকা টিম এবং স্থানীয় এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই তিনজনকে আটক করে। এ সময় রহমানের ছেলে রাজু (৩০) সহ বাকিরা পালিয়ে যায়। পরে গ্রেপ্তারকৃত জাকিরের পরা প্যান্টের পকেট থেকে ২ লাখ এবং মাসুমের জ্যাকেট থেকে নগদ ১ লাখ টাকা উদ্ধার করেন পুলিশ।  


স্থানীয়রা জানান, গ্রেপ্তারকৃতরা চিহ্নিত অপরাধি। তারা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রভাবশালীদের নাম ভাঙ্গিয়ে অপরাধ কর্মকান্ড করে থাকে। দীর্ঘদিন যাবৎ তারা সংঘবদ্ধভাবে অপরাধ কর্মকান্ড করলেও কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস পায়না। কেউ প্রতিবাদ করলে তাদের উপর চালানো হতো অমানবিক অত্যাচার। 


এ বিষয়ে বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গোলাম মোস্তফা জানান, গ্রেপ্তারকৃতরা পেশাদার ছিনতাইকারী। তাদের কাছ থেকে ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। ভুক্তভোগী বাদী হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।