নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

সোমবার,

২২ জুলাই ২০২৪

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ কার্যালয়ে ঘুষ লেনদেন (ভিডিও)

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:২২:২১, ২০ জুন ২০২৪

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ কার্যালয়ে প্রকাশ্যে দুই উপ-সহকারী প্রকৌশলীকে ঠিকাদারের ঘুষ দেয়ার একটি ভিডিও চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। তারা হলেন বর্তমান উপ-সহকারী

এদিকে ঘুষ লেনদেনের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে নানা সমালোচনার প্রকৌশলী কাঞ্চন কুমার পালিত এবং বদলি হওয়া সাবেক সহকারী প্রকৌশলী আব্দুল কুদ্দুস ও ঠিকাদার জহির। তবে ঘুষ লেনদেনের ভিডিওটি কবের তা জানা যায়নি।  সৃষ্টি হয়।

মোবাইল ফোনে ধারণ করা পাঁচ মিনিটের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ কার্যালয়ে জহির নামে এক ঠিকাদারের কাছ থেকে ঘুষের টাকা নিতে দর কষাকষি চলছে।

দুই প্রকৌশলী দেড় লাখ টাকা দাবি করেন। জহির এক লাখ ত্রিশ হাজার টাকা দিতে রাজি হন। পরে জহির পকেট থেকে টাকা বের করে গুনে প্রকৌশলীদের হাতে দেন।

ভিডিওতে প্রকৌশলী ও ঠিকাদারের আলাপে শোনা যায়, এই এক লাখ ত্রিশ হাজার টাকা ভাগ করে নেবেন কাঞ্চন ও কুদ্দুস। ঘুষের আরও কিছু টাকা জেলা পরিষদের অ্যাকাউন্ট অফিসার গোপাল বোসকেও দিতে হবে বলতে শোনা যায় জহিরকে।

'স্যারও পাবেন' বলে আলাপচারিতায় উল্লেখ করা হয়। তবে এ স্যার কাকে সম্বোধন করা হয়েছে, তার নাম কেউ সেসময় বলেননি।

ভিডিওটি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, জহির নিজেই তার মোবাইলে এটি ধারণ করেছেন।

ওদিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চন্দন শীল তিনিও ভিডিওটি দেখেছেন বলে উল্লেখ করে বলেন, এই কার্যালয়ে আমি কারো কোনো অনিয়ম, দুর্নীতি বা অপকর্ম সহ্য করব না।

ভিডিওটির ব্যাপারে আমি সরকারের উচ্চ পর্যায়ে অবগত করব। কারণ, আমি নিজে স্বচ্ছতার সাথে কাজ করি। আমার এখানে কোনো বদনাম হলে সেটা সরকারের বদনাম হবে, প্রধানমন্ত্রীর বদনাম হবে। আমি এটা মেনে নিতে পারবো না।

তিনি আরও বলেন, উপ-সহকারী প্রকৌশলী আব্দুল কুদ্দুস বদলি হয়ে গেছেন। আর উপসহকারী প্রকৌশলী কাঞ্চন কুমার পালিতের বিরুদ্ধে সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন সাহেবের সময়কাল থেকেই নানা অনিয়মের অভিযোগ আমার কাছে এসেছে। এসব অভিযোগের কারণে তাকে বদলির জন্য সম্প্রতি আমি ডিও লেটার দিয়েছি।

সম্পর্কিত বিষয়: