নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

শনিবার,

২৬ নভেম্বর ২০২২

না’গঞ্জ বিএনপির নতুন কমিটি শিগগিরই : শীর্ষ দুই পদেই থাকছে চমক

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:১৮:৫৫, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২

না’গঞ্জ বিএনপির নতুন কমিটি শিগগিরই : শীর্ষ দুই পদেই থাকছে চমক

আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও সরকারবিরোধী আন্দোলন সংগ্রামকে সামনে রেখে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির বিএনপির নতুন কমিটির ঘোষণা আসছে।

 

সবকিছু ঠিক ঠাক শিগগিরই আসছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি। এছাড়াও আসছে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির পুর্ণাঙ্গ কমিটিও। 


বিএনপির এই দুটি কমিটি পুনর্গঠন হবে । পুরোনো ও নতুনদের সমন্বয়ে গঠিত হতে পারে নতুন কমিটি। তরুণ নেতৃত্ব অগ্রাধিকার পাচ্ছে কমিটিতে। 


এদিকে জেলা ও মহানগর বিএনপির দুই শীর্ষ পদেই থাকছে নতুন চমক। বিএনপির কেন্দ্রীয় সূত্রমতে, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে নতুন কমিটি। ওখান থেকে গ্রীন সিগন্যাল পেলেই দলীয় মহাসচিব স্বাক্ষরিত কমিটি ঘোষণা হবে।


বিএনপির কেন্দ্রীয় সূত্রে জানা যায়, অতীতের সব ব্যর্থতা মুছে ঘুরে দাঁড়াতে চায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপি। রাজপথে নেতাকর্মীদের চাঙা রাখতে হলে নেতাদেরই অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে। তাই জেলা ও মহানগর কমিটি ঢেলে সাজাতে চাইছে হাইকমান্ড। 


জন্য সাংগঠনিক দিকসহ সবকিছু বিবেচনা করে রাজপথের আন্দোলন সংগ্রামের সাহসী, ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা এবং সাবেক জনপ্রিয় ছাত্রনেতা ও তরুণ নেতৃত্বের হাতে দেয়া হচ্ছে দায়িত্ব। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে জমা দেওয়া দিয়েছে হাইকমান্ড। 


নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির শক্তিশালী কমিটি করতে দলের সিনিয়র নেতাদের কাছ থেকে পরামর্শ নিচ্ছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। সবকিছু ঠিকঠাক চলতি মাসের মধ্যেই নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির নতুন কমিটি হতে পারে বলে জানান বিএনপির দায়িত্বশীল নেতারা।


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির কেন্দ্রীয় এক নেতা বলেন, বিগত আন্দোলন সংগ্রামে বারবার ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে জেলা ও মহানগর বিএনপি। এক দশক ধরে রাজপথে দাঁড়াতেই পারছে না তারা। ব্যর্থতার দায়ে পুরোনা কমিটি ভেঙে দিয়ে ২০১৭ সালে নতুন কমিটি গঠন করা হয়। 


মহানগর বিএনপির সেই কমিটিও গত পাঁচ বছরে তেমন কিছু করতে পারেনি। আর ২০২০ সালে জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি গঠন করা হলেও এখন পর্যন্ত নানা কারনে ইউনিট কমিটির সম্মেলন সম্পন্ন করতে পারেনি।


তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির নতুন কমিটির তালিকা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে পাঠানো হয়েছে। নতুন কমিটিতে থাকবে অনেক চমক। 


কমিটিতে আসছেন নতুন অনেকেই। আসছেন সাংগঠনিকভাবে সুপরিচিত ও ইমেজধারী নেতাদের পাশাপাশি সাবেক ছাত্রনেতাদের কেউ কেউ। বিগত সময়ের আন্দোলন সংগ্রামে রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন এমন নেতাদেরও মূল্যায়ন করা হচ্ছে এ কমিটি গঠনে।


এদিকে মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক আহ্বায়ক পদে মহানগর বিএনপির বর্তমান কমিটির সভাপতি সাবেক এমপি এড. আবুল কালাম, সিনিয়র সহ-সভাপতি আইনজীবী নেতা এড. সাখাওয়াত হোসেন খান, সদস্য সচিব পদে মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু, জেলা আইনজীবী ফোরামের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক এড. আনোয়ার প্রধান, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আবুল কায়সার আশার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।


এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক জেলা বিএনপির নতুন কমিটির আহ্বায়ক বা সভাপতি পদে আলোচনায় রয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবি, সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদ, সদস্য সচিব বা সাধারণ সম্পাদক পদে জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক নাছির উদ্দিন, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মাশুকুল ইসলাম রাজিব, জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি মোশাররফ হোসেন,  সাংগঠনিক সম্পাদক পদে জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক  রুহুল আমিন শিকদার।


সূত্রে জানাযায়, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সক্ষমতা নিয়ে নানা প্রশ্ন ওঠে। গত ২০২০ সালের ৩১শে ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির ৪১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। বিগত প্রায় দুই বছর অতিবাহিত হলেও জেলা বিএনপির বিএনপির সম্মেলন তো দূরের কথা এখনও পর্যন্ত থানা ও পৌরসভার বিএনপির সম্মেলন সম্পন্ন করতে পারেনি। 


মূলত নিজেদের ভিতরে গ্রুপিং ও কোন্দলের কারণেই সম্মেলন করতে পারেনি। যদিও আড়াইহাজার উপজেলা ও দুটি পৌরসভা এবং সোনারগাঁ উপজেলা ও পৌরসভা কমিটি সম্মেলন সম্পন্ন করতে পারলেও রূপগঞ্জ, সিদ্ধিরগঞ্জ ও ফতুয়া থানা কমিটির সম্মেলন নিয়ে চলছে নানা জটিলতা। 


নিজেদের ভিতরে কোন্দল ও গ্রুপিং এর কারনেই এসকল কমিটির সম্মেলন করতে না পারায় কেন্দ্রের নির্দেশে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আহ্বায়ক কমিটি বাতিল করা হয়। আর বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির উপর আস্থা রাখতে পারছেন না কেন্দ্র। এসকল ব্যর্থতার কারণেই নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপিকে ঢেলে সাজাতে চায় হাইকমান্ড।


সূত্রে আরও জানায়, মহানগর বিএনপির কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ অন্য দিকে কমিটির সেক্রেটারি হলেন বহিষ্কার। আর মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি এড. আবুল কালাম অসুস্থ। নিজের ব্যক্তিগত অফিসকে মহানগর বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয় হিসেবে ব্যবহার করতে দিয়েছেন। অসুস্থ সভাপতি আবুল কালাম দলীয় বেশীরভাগ কর্মসূচিতেই থাকেন অনুপস্থিত। 


আর এখন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছিল যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টুকে। তিনি এর আগেও এটিএম কামাল বিদেশে অবস্থানকালে ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারির হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। 


সামনে আসছে বিএনপির ব্যাপক কর্মসূচি। মহানগর বিএনপির বর্তমান সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদককে দিয়ে সামনের কর্মসূচি গুলো পালন করা সম্ভব নয় বলে বিএনপির নেতাকর্মীদের সূত্রে জানা যায়। 
তাই বর্তমান মহানগর বিএনপির মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ভেঙে নতুন নেতৃত্বে নতুন কমিটি গঠনের জন্য বিএনপির হাইকমান্ডের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন। আর ঝিমিয়ে পড়া মহানগর বিএনপির কার্যক্রম নতুন নেতৃত্বে আবারও ঘুরে দাঁড়াবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টরা।
 

সম্পর্কিত বিষয়: