নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

সোমবার,

০২ আগস্ট ২০২১

ঈদের আগে শ্রমিকদের পাওনাদি পরিশোধের দাবিতে নগরীতে মানববন্ধন 

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:১৭:০৩, ১৬ জুলাই ২০২১

ঈদের আগে শ্রমিকদের পাওনাদি পরিশোধের দাবিতে নগরীতে মানববন্ধন 

ঈদের আগে শ্রমিকদের বেতন, ঈদের পূর্ণ বোনাস ও সকল বকেয়া পরিশোধ এবং রূপগঞ্জে হাসেম ফুড লিমিটেডের অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ ও দায়ী মালিকসহ সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানবন্ধন করেছে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলা। 


শুক্রবার (১৬ জুলাই) ১০ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ এর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরীফ, জেলার সহ-সভাপতি হাসান মাহমুদ,  গাবতলী-পুলিশ লাইন শাখার সাধারণ সম্পাদক হাসনাত কবীর,  কাচঁপুর আঞ্চলিক শাখার সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন খান।   


মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ বলেন, ঈদ আসলেই বেতন বোনাস নিয়ে অনেক কারখানায় মালিক টালবাহানা করে। শ্রম আইনে সাত কর্ম দিবসে বেতন দেওয়ার কথা থাকলেও মালিকরা চানরাতে শ্রমিকদের বেতন, বোনাস পরিশোধ করে। বোনাস কোন দান-খয়রাত নয়, শ্রমিকের অধিকার । 


কিন্তু অধিকাংশ কারখানায় নামমাত্র বোনাস দেওয়া হয়। সেক্ষেত্রে ২শ/৫শ টাকা পর্যন্ত বোনাসের পরিবর্তে বকশিশ দেওয়া হয়। দেশে করোনা মহামারি মোকাবিলায় কঠোর লকডাউন চলেছে। নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম অনেক বেশি। পরিবহন বন্ধ থাকায় শ্রমিকদের বেশি টাকা খরচ করে ফ্যাক্টরিতে কাজে যেতে হয়েছে। 


মানবিক কারনেই শ্রমিকের বেতন বোনাস ঈদের বেশ আগে দেওয়া দরকার ছিলো। আমাদের সংগঠনসহ দেশের ক্রিয়াশীল শ্রমিক ফেডারেশগুলোর দাবি ছিলো ১৫ জুলাই-এর মধ্যে তা পরিশোধ করার। কিন্তু শ্রম প্রতিমন্ত্রী তার পছন্দসই শ্রমিক নেতাদের নিয়ে টিসিসির সভা করে ঘোষণা দিয়েছেন ১৯ জুলাইর এর মধ্যে বেতন-বোনাস পরিশোধ করতে। 


এখানে শ্রম প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান একজন সাংসদ হয়ে মালিকদের পক্ষাবলম্বন করেছেন, শ্রম আইন লঙ্ঘন করে কথা বলেছেন। শ্রমিকের যৎসামান্য কেনা-কাটা ও পরিবার পরিজন নিয়ে ঈদ করার স্বার্থে অবিলম্বে শ্রমিকের বেতন, কমপক্ষে বেসিকের সমান বোনাস পরিশোধ করতে হবে। 


আদমজী ইপিজেডে কুনতং অ্যাপারেলস, সিনহা গার্মেন্টসসহ যে সকল কারখানায় শ্রমিকের বকেয়া রয়েছে ঈদের আগে তা পরিশোধের ব্যবস্থা করতে হবে। বেতন-বোনাস-বকেয়া নিয়ে কোন শিল্প এলাকায় অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি হলে তার জন্য মালিক ও প্রশাসন দায়ী থাকবে।   


নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, রূপগঞ্জে হাসেম ফুড লি: এর অগ্নিকান্ডে মালিকসহ ৬ জন গ্রেফতার থাকলেও কারখানায় আইন অনুযায়ী উৎপাদন হচ্ছে কিনা তা দেখভালের দায়িত্বে থাকা সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। 


এ অগ্নিকান্ডে শ্রমিকের মৃত্যুই আমাদের দেশে সর্বশেষ ঘটনা-এটা করার জন্য দায়ী মালিক ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। 

 

নিহত শ্রমিকদের জন্য ২ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ ঘোষিত হয়েছে, এটা কোনভাবেই গ্রহনযোগ্য নয়। আইএলও কনভেনশন অনুযায়ী আজীবন আয়ের সমান কমপক্ষে ৫০ লাখ করে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।
 

সম্পর্কিত বিষয়: