নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

শুক্রবার,

২১ জুন ২০২৪

আজ শামীম ওসমানের ৬২ তম জন্মদিন

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:১৭:৩৫, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

আজ শামীম ওসমানের ৬২ তম জন্মদিন

আজ আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমানের ৬২তম জন্মদিন। ১৯৬১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি তিনি জন্মগ্রহণ করেন। 

শামীম ওসমানের বাবা একেএম সামসুজ্জোহা ছিলেন ভাষা সৈনিক, স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম সংগঠক, আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর, সাবেক গণপরিষদের সদস্য, মরণোত্তর স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত। ১৯৮৭ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি ইন্তেকাল করেন সামসুজ্জোহা।

শামীম ওসমানের দাদা খান সাহেব ওসমান আলী ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য। শামীম ওসমানের মা নাগিনা জোহা ২০১৬ সালের ৭ মার্চ ইন্তেকাল করেন। শামীম ওসমানের স্ত্রীর নাম সালমা ওসমান লিপি। তার এক ছেলে অয়ন ওসমান ও মেয়ে রয়েছেন। বর্তমানে শামীম ওসমান তার পরিবার নিয়ে ঢাকার গুলশানে বসবাস করছেন। তিবি প্রেম করে বিয়ে করেছেন এমন ঘটনা অনেকবার বর্ণনা করেছেন বিভিন্ন অনুষ্ঠানে। 

তার পুত্র অয়ন ওসমান বর্তমানে আইন পেশায় নিয়োজিত। নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মাঝে একজন জনপ্রিয় মুখ।

শামীম ওসমানের বড় ভাই নাসিম ওসমান ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি। ২০১৪ সালের ৩০ এপ্রিল তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মেঝ ভাই সেলিম ওসমান নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি ও বিকেএমইএ এর সভাপতি।

নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী পরিবারের সদস্য শামীম ওসমান ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন। এরপর ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারী  ও ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে তিনি পর পর সংসদ সদস্য নির্বািচত হন।

এ কে এম শামীম ওসমানের দাদা খান সাহেব এম ওসমান আলী ছিলেন। তৎকালীন বৃটিশ ভারতের প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব, এম এল এ এবং আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য।

 ব্রিটিশ সরকার তার যোগ্যতার কারণে খান বাহাদুর ও খান সাহেব উপাধিতে ভূষিত করেন। তিনি বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনে সঙ্গে অভ্যুত্থান এবং স্বাধীনতার আন্দোলনে বঙ্গবন্ধুর অন্যতম সহচর হিসেবে সক্রিয়ভাবে ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে রাজনৈতিক সমর্থন দেন।

শিক্ষাগত যোগ্যতা

নারায়ণগঞ্জ বার একাডেমি থেকে এসএসসি, তোলারাম কলেজ থেকে এইচ এস সি পাশ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্নাতক এবং নারায়ণগঞ্জ আইন কলেজ থেকে এল এল বি ডিগ্রি অর্জন করেন শামীম ওসমান। 

রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড

৮ম শ্রেণিতে পড়াশোনা অবস্থায় ছাত্র রাজনীতি দিয়ে শুরু করেন রাজনৈতিক বর্ণাঢ্য জীবন। পরবর্তীতে সরকারী তোলারাম কলেজ ছাত্রছাত্রী সংসদের ভিপি নির্বাচিত হন। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও নির্বাচনের মাধ্যমে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

৯৬ সালে প্রথমবার এমপি নির্বাচিত হয়ে নারায়ণগঞ্জের ডিজিটাল টেলিফোন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড নির্মাণ, ফতুল্লায় খান সাহেব ওসমান আলী জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, সিদ্ধিরগঞ্জে বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা ও গ্যাস সমস্যার সমাধান, বক্তাবলীতে বিদ্যুৎ সংযোগ, তোলারাম কলেজে অনার্স মাস্টার্স কোর্স চালু, রাস্তা-ঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন, নতুন আদালত ভবন, জেলা কারাগার নির্মাণ, শামীম ওসমানের বড় কাজগুলোর অন্যতম।

 সে সময় ২৬০০ কোটি টাকার উন্নয়ন করেছেন নিজ সংসদীয় আসনে। এছাড়া তৎকালীন এমপি থাকাকালীন তিনি নারায়ণগঞ্জের বহুদিনের কলংক

টানবাজারের পতিতা পল্লী উচ্ছেদ করে আলোচিত হন। দ্বিতীয় দফায় ২০১৪ সালে এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর উন্নয়নের মাত্রা দ্বিগুন ছাড়িয়ে যায়। টানা দুইবার এমপি নির্বাচিত হয়ে ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন।

 শামীম ওসমানের নিজ ভাষ্য মতে, দ্বিতীয়বার এমপি হয়ে তিনি প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ণ কাজ করেছেন। যার মধ্যে ৫৫৮ কোটি টাকার (চলমান) ডিএনডি প্রকল্প অন্যতম।
 নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে অত্যন্ত জনপ্রিয় এই নেতা তার জন্মদিনের সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।