নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

সোমবার,

১৭ জুন ২০২৪

বৃষ্টি হলেই ডুবে ৬নং ওয়ার্ডের এই রাস্তাটি, ভোগান্তি

নারায়ণগঞ্জ টাইমস:

প্রকাশিত:২১:১৮, ৮ আগস্ট ২০২৩

বৃষ্টি হলেই ডুবে ৬নং ওয়ার্ডের এই রাস্তাটি, ভোগান্তি

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের তিন মেয়াদেও নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের পোড়াবাড়ি মসজিদ হতে চর শিমুল পাড়া ডাচ বাংলা পাওয়ার প্লান্ট পর্যন্ত রাস্তা সংস্কার না হওয়ায় এলাকার মানুষকে বছরের পর বছর ধরে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।সামান্য বৃষ্টি হলেই অনেক জায়গায় জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। ভাঙ্গা রাস্তায় গাড়ি চলাচল তো দূরের কথা হাঁটাও অসম্ভব হয়ে পড়েছে। ফলে এলাকাবাসীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বৃষ্টিতে পানি জমে সড়ক হয়ে ওঠে খাল! যেখানে সেখানে ফেলা হয় বর্জ্য, ময়লা আবর্জনা। জমে থাকা পানিতে ময়লা আবর্জনা মিশে পুরো এলাকার পরিবেশ দূষিত। এসব সড়কে যানবাহন তো দূরে থাক, পায়ে হেঁটে চলাও মুশকিল।

 

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, ৬নং ওয়ার্ডের পোড়াবাড়ির মসজিদ হতে চর শিমুল পাড়ার ডাচ বাংলা পাওয়ার প্লান্ট পর্যন্ত প্রায় ১ কি.মি. এলাকা জুড়ে খানা খন্দে ভরে গেছে। বৃষ্টির পানি ও কাঁদামাটিতে একাকার হয়ে রয়েছে গোটা রাস্তাটি।ওই সড়ক দিয়ে দুর্ভোগের সাথে প্রতিদিন সহস্রাধিক বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করছে। আর প্রায়ই ঘটছে ছোট-বড় নানা দুর্ঘটনা। রাস্তার এই বেহাল অবস্থা হওয়ায় প্রতিদিন এ রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী ৫০  হাজারেরও বেশি পথচারীদের পড়তে হয় চরম বিড়ম্বনায়। আবার জরুরি প্রয়োজনে অ্যাম্বুলেন্সে অসুস্থ রোগী ও প্রসূতি পরিবহনে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হয়। দীর্ঘদিন থেকে এর স্থায়ী সংস্কার না হওয়ায় মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব মতিউর রহমান মতির প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী যাত্রী ও চালকরা।

 

অটোরিকশা যাত্রী চরশিমুল পাড়া  গ্রামের আল-আমিন বলেন, রাস্তাটা খুব খারাপ হয়ে গেছে। রাস্তা খারাপের কারণে এখন গাড়ী চলাচল কমে গেছে। কোন রিকশা চালক রাস্তা দিয়ে যেতে চায় না। ফলে বাজার সদায় নিয়ে অনেক ভোগান্তি পোহাতে হয়। ভাঙ্গা রাস্তার কারণে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটছে। সিটি কর্পোরেশনের আওতায় রাস্তার এরকম বেহাল দশা হলেও কেনো যে সংস্কার হচ্ছে না তা জানা নেই।

 

রিকশা চালক কাশেম জানান, রাস্তা খারাপ হওয়ায় প্রায়শই গাড়ির চাঁকা সহ যন্ত্রাংশ নষ্ট হচ্ছে। চাকা ফেঁসে যাচ্ছে। যা উপার্জন করি তার বড় একটি অংশ গাড়ি মেরামতে ব্যয় করতে হচ্ছে আমাদের। আবার কখনও এ রাস্তায় ট্রাক ঢুকলে মালামালসহ উল্টে যাচ্ছে। এ কারণে ওই পথে ট্রাক যেতে চায় না। স্থানীয় কাউন্সিলর মতি ভাইয়ের উদ্যোগে কিছু কিছু স্থানে ইটের খোয়া দিয়ে দেয়া হলেও যান চলাচলে তা উপযোগী নয়। এদিকে এলাকাবাসী জানান, আমাদের এলাকা সিটি কর্পোরেশন হয়েছে ১২ বছরের মতো হয়েছে। কিন্তু সিটি কর্পোরেশন এলাকার বাসিন্দা হয়েও আমরা অনেক সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। আমাদের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটির বেহাল দশা হওয়ার কারণে আমাদের অনেক দূর্ভোগ পোহাতে হয়। বৃষ্টি হলে বাজার করতে যাওয়া যায় না। রোগী নিয়ে হাসপাতালে যেতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। মাননীয় মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী ও ডিএনডি প্রজেক্টের কাজে কর্মরত সেনাবাহিনীর কাছে আবেদন থাকবে আমাদের এ রাস্তাটি যেন তারা দ্রুত করে দেয়।

 

আমরা তাদের কাছে দীর্ঘদিনের দুর্ভোগ থেকে রেহাই চাই। এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব মতিউর রহমান মতি জানান, আমার ওয়ার্ডে এ রাস্তাটি খুবই প্রয়োজনীয়। আমার ব্যক্তিগত উদ্যোগে ইট-সুরকি ফেলে বেশ কয়েকবার মেরামত করা হয়। চরশিমুলপাড়া ও সোনামিয়া বাজারে আমি নিজ উদ্যোগে দুটি পুলের ব্রিজ বানিয়ে দিয়েছি। কিন্তু স্থায়ীভাবে চলাচলের জন্য এখানে ব্রীজ নির্মাণ প্রয়োজন। এখানে ভাঙ্গা রাস্তায় বয়স্ক ও শিশুদের চলতে অনেক সমস্যা হয়।রাস্তাটি সংস্কারের  ব্যাপারে আমি মাননীয় মেয়র মহোদয় এর সাথে অনেকবার কথা বলেছি। কিন্তু কোন ফলাফল আমি পাচ্ছি না। জনদুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে অচিরেই রাস্তাটির সংস্কারের ব্যাপারে উদ্যোগ নেয়া হবে বলে আশা রাখি।