নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

রোববার,

০৩ জুলাই ২০২২

ব্যবসায়ী সেলিম হত্যা মামলায় দুই আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:১৬:২৫, ২০ জুন ২০২২

ব্যবসায়ী সেলিম হত্যা মামলায় দুই আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ফতুল্লায় থান কাপড় ব্যবসায়ী সেলিম হত্যা মামলায় দুই আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সাথে সাজাপ্রাপ্তদের পঞ্চাশ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। 


সোমবার (২০ জুন) দুপুরে আসামিদের উপস্থিতিতে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ সাবিনা ইয়াসমিনের আদালত এই রায় প্রদান করেন। 


দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন- একই এলাকার ঝুট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী ও তার কর্মচারি ফয়সাল। এছাড়া এই মামলায় সোলেমান মিয়া ও আলী হোসেন নামে দুই আসামির অপরাধ প্রমাণিত না হওয়ায় আদালত তাদের খালাস প্রদান করেন।


রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান বলেন, রায় ঘোষণার পর সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের আদালতের নির্দেশে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। 


মামলার বিবরণে জানা যায়, সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার বক্তাবলী ইউনিয়নের কানাইনগর এলাকার থান কাপড় ও ঝুট ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান চৌধুরী সেলিমের দুই লাখ টাকা আত্মসাৎ করে একই এলাকার ঝুট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী ও তার সহযোগিরা।

 

পরবর্তীতে সেলিম পাওনা টাকা ফেরত চাইলে ২০১৯ সালের ৩১ মার্চ পূর্ব-পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যার পর লাশ গুম করা হয়। 


এ ঘটনায় সেলিম নিখোঁজ হলে তার স্ত্রী রেহানা আক্তার রেখা বাদি হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। নিখোঁজের আটদিন পর ৯ এপ্রিল পুলিশ মোহাম্মদ আলীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মাটি খুঁড়ে সেলিমের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে।

 

পরে আসামিদের গ্রেপ্তার করা হলে তারা হত্যাকান্ডের ব্যাপারে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দেন। 


রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর জাসমিন আহমেদ বলেন, এই মামলায় আদালত এগারোজন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ করেছেন। স্বাক্ষীদের স্বাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতেই আদালত এই রায় প্রদান করেছেন। তবে আদালতের রায়ে সন্তুষ্ট নন বলে জানান নিহতের স্বজনরা। 


রায় ঘোষণার পর মামলার বাদি ও নিহত সেলিমের স্ত্রী রেহানা আক্তার রেখা ক্ষোভ প্রকাশ করে আদালতে উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, আসামিরা জবানবন্দিতে হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করলো।

 

তাদের ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানের গোডাউন থেকে লাশ উদ্ধার হলো। তারপরেও কেন তাদের যাবজ্জীবন সাজা হলো? আমি তাদের ফাঁসি চাই।