নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

সোমবার,

১৫ এপ্রিল ২০২৪

অপহরণ চক্রের দুই নারী সদস্য গ্রেপ্তার

সিদ্ধিরগঞ্জে স্বর্ণব্যবসায়ী অপহরণ, মুক্তিপণ দাবি : অপহৃত উদ্ধার 

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:১৭:৪৯, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সিদ্ধিরগঞ্জে স্বর্ণব্যবসায়ী অপহরণ, মুক্তিপণ দাবি : অপহৃত উদ্ধার 

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মীর হোসেন (৪২) নামে এক স্বর্ণব্যবসায়ীকে অপহরণ করে মারধর ও পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবির অভিযোগে অপহরণকারী ও অজ্ঞান পার্টি চক্রের দুই নারী সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। এ সময় তাদের হেফাজত থেকে অপহৃত ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করা হয়। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, সিদ্ধিরগঞ্জের আজিবপুর এলাকার ছিফা আক্তার ও বরিশাল জেলার বিমান বন্দর থানার বারইখালী গ্রামের রাহিমা জান্নাতুল ওরফে খালেদা।

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে র‌্যাবের মিডিয়া অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার সনদ বড়ুয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এরআগে শুক্রবার সোনারগাঁ উপজেলার কাঁচপুর ইউনিয়নের সোনাপুর বটতলা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার ও ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, গ্রেপ্তারকৃত ছিফা আক্তার গত ১ ফেব্রুয়ারি দুপুর দেড়টার দিকে মীর হোসেনের দোকানে এসে তার এক আত্মীয়ের স্বর্ণের গহনা বানানোর অর্ডার নেওয়ার জন্য মীর হোসেনকে ওই আত্মীয়ের বাসায় যেতে বলেন। এতে মীর হোসেন রাজি না হননি।

পরে দুপুরের খাবার খাওয়ার জন্য দোকান থেকে বের হলে ছিফা আক্তারসহ ২-৩ জন মিলে একটি সিএনজি নিয়ে মীর হোসেনের সামনে দাঁড় করিয়ে তার নাকে রুমাল ধরে অচেতন করে ফেলে। 

পরে সিএনজিতে উঠিয়ে তাকে অপহরণ করে কাঁচপুরের সোনাপুর বটতলা এলাকায় নিয়ে আটকে রাখে। এসময় চক্রের সদস্যরা মোবাইলে মীর হোসেন ও ছিফা আক্তারের অশ্লীল ছবি ধারণ করে তাকে ব্ল্যাকমেইল করে। তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে মুক্তিপণ হিসাবে ৫ লাখ টাকা দাবি করে। 

মীর হোসেন টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করা হয়। তখন তিনি আটক অবস্থায় তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন দিয়ে বড় ভাই মোকলেস মিয়াকে মুক্তিপণের ৫ টাকা দিয়ে তাকে উদ্ধার করতে বলেন। মুক্তিপণের টাকা দিতে দেরি হওয়ায় পুনরায় মারধর ও হত্যার হুমকি দেয়।

বিষয়টি জানতে পেরে র‌্যাব-১১ এর সিপিএসসি কোম্পানির একটি গোয়েন্দা দল যথাযথ গুরুত্বের সাথে তার অবস্থান সনাক্ত করে সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অপরহণকারী চক্রের সক্রিয় ২ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে।

র‌্যাব আরও জানায়, এ চক্রের সাথে জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।