নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

বুধবার,

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

ফতুল্লা মডেল থানায় পুলিশ সদস্যের বিদায় সংবর্ধনায় ভিন্ন আয়োজন

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:১৯:১৩, ১ আগস্ট ২০২১

ফতুল্লা মডেল থানায় পুলিশ সদস্যের বিদায় সংবর্ধনায় ভিন্ন আয়োজন

জেলার ফতুল্লা মডেল থানার পুলিশ কনেস্টেবল মো. আফসার উদ্দিন আহম্মেদ ৩৯ বৎসর ৫ মাসের  চাকুরি জীবনের পাঠ চুকিয়ে অবসর নিয়ে ফিরেছেন পরিবারের কাছে। চাকুরী জীবনে  তিনি বাংলাদেশ পুলিশের কনেস্টবল পদে দেশের বিভিন্ন জায়গায় নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন । 

রোববার ছিল তার চাকরির শেষ দিন। বিদায় বেলা অনেকটাই ভারাক্রান্ত ছিলেন তিনি। কিন্তু ভিন্ন রকমের আয়োজন করে বিদায়ের বিষাদটাকে আনন্দে ভরিয়ে দিলেন ফতুল্লা মডেল থানার ইনচার্জ রকিবুজ্জামান সহ থানা পুলিশ সদস্যরা। থানা থেকে বাড়ী পর্যন্ত পৌছে দিলেন পুলিশ সদস্যরা।

কনস্টেবল মো. আফসার উদ্দিন আহম্মেদের বিদায় উপলক্ষে রোবাবর থানার সকল সদস্যেদের নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তাকে বিদায় জানানো হয়। এ সময় তার হাতে তুলে দেওয়া হয় বিভিন্ন উপহার সামগ্রী। পরে বাড়ি ফেরার সময় তার সন্মানে তাকে বহনকারী  গাড়িটি বিভিন্ন রং বেরংঙ্গের বেলুন ও ফুল দিয়ে সাজানো হয়। 

দেখে মনে হবে কোনো বর যাবে গাড়িতে। সেই গাড়ীর সামনে ছিলো ওসির  ব্যবহৃত গাড়ী। পরে ওই গাড়িতে করে নারায়নগঞ্জ জেলার পার্শ্ববর্তী মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়ায় তার নিজ বাড়িতে পরিবারদের কাছে নামিয়ে দিয়ে আসা হয়।

কনস্টেবল মো. আফসার উদ্দিন আহম্মেদ জানান, সেই ১৯৮২ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারী মাসে বাংলাদেশ পুলিশের কনস্টেবল পদে যোগদান করেছিলাম।  দীর্ঘ চাকরি জীবনে নানা স্মৃতি চোখের সামনে ভেসে উঠে। 

তবে আমার বিদায় বেলা আমার ওসি স্যার এবং পুলিশ সদস্যরা  যেভাবে আমাকে সম্মান দেখালেন তা সত্যি বিরল। পুলিশের এমন বিরল  সম্মান পাওয়ায় নিজেকে নিয়ে গর্ববোধ করছি। ওসি, এসপি স্যারসহ সকল ঊর্ধ্বতন স্যারদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
 
ফতুল্লা মডেল  থানার ইনচার্জ রকিবুজ্জামান জানান, একটা লোক তার সারা জীবনের মূল্যবান সময়টুকু বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীকে দিয়েছে। তাই তার বিদায় বেলা সামান্য সম্মান জানানোর চেষ্টা করেছি মাত্র। কনস্টেবল  মো. আফসার উদ্দিন আহম্মেদের বিদায়ের সময় থানার সকল সদস্যেদের সাথে নিয়ে বিদায় জানিয়েছি। 

তার অবসর জীবনে যেকোনো সমস্যা হলে আমাকে ব্যক্তিগতভাবে জানানোর জন্য বলেছি। এ ছাড়া বিষয়টি আমাদের ঢাকা রেঞ্জের  ডিআইজি হাবিবুর রহমান এবং জেলা পুলিশ সপার জায়েদুল ইসলামের  নির্দেশনায় এরকম বিদায়ের আয়োজন করা হয়েছে।
 

সম্পর্কিত বিষয়: