নারায়ণগঞ্জ টাইমস | Narayanganj Times

বুধবার,

২৯ মে ২০২৪

আমাদেরকে একপ্রকার অপমান করা হচ্ছে : মেয়র আইভী

নারায়ণগঞ্জ টাইমস

প্রকাশিত:২২:৫৪, ৮ এপ্রিল ২০২৪

আমাদেরকে একপ্রকার অপমান করা হচ্ছে : মেয়র আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, হকার সমস্যা সারাদেশেই আছে। বিভিন্ন জায়গায় এটি সমাধানও হয়েছে, কিন্তু যারা এতো বড় একটি জায়গা দেওয়ার পরেও বঙ্গবন্ধু সড়কে যাচ্ছে, তাতে আমাদেরকে একপ্রকার ইনসাল্ট (অপমান) করা হচ্ছে। কে বা কারা করছে এটি, তা জানি না, কিন্তু এসব মেনে নেওয়া যায় না।

এক নম্বর রেল গেইটের উপর বিশাল বড় মার্কেট হচ্ছে যেটা রেলের প্রাক্তন কর্মচারীরা করছেন। আমরা এ বিষয়ে কেউ কিছু জানি না, বলছিও না। একটা শহরে যেখানে এতগুলো মানুষকে চেষ্টা করেও আমরা জায়গা দিতে পারছি না। 

এখানে সরকারিভাবে একটা মাল্টিফান্ডাল হাব হওয়ার কথা। নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়, যোগাযোগ মন্ত্রণালয় ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে এখানে একটি বড় বিল্ডিং হওয়ার কথা। এখানে রেলস্টেশনে, নৌ সুবিধা ও বাস টার্মিনাল থাকার কথা। 

নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে শহরের নাগরিক সমস্যা নিরসনে মতবিনিময় সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। সোমবার (৮ এপ্রিল) শহরের চাষাঢ়ায় বিকেএমইএ ভবনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে বহুল আলোচিত হকার সমস্যা ছাড়াও ডিএনডি প্রজেক্ট নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

মন খুলে কথা বলতে না পারার আক্ষেপ জানিয়ে মেয়র আইভী আরও বলেন, আপনারা একই মঞ্চে ডাকছেন, আসছি, কথা বলছি, কিন্তু এর মানে তো এই না যে এই শহরে যে যা খুশি তাই করবে। অনেক কাজই করতে পারি না, অনেক কথাই মন খুলে বলতে পারি না। চেষ্টা করছি সবার সাথে মিলেমিশে কাজ করতে। তাতে কি অন্যান্য সংস্থা এসেও যা খুশি করবে, আমাদের অধিকার হরণ করবে আর স্থানীয় লোকজন চেয়ে চেয়ে দেখবে।

জেলায় সমস্যা তো খুব বেশি দেখি না। যে দুয়েকটি সমস্যা আছে, সেগুলো যদি সেলিম ভাই ও শামীম ভাই বসে শুধু বলে দেয়, তাহলে তো তাৎক্ষণিকভাবে হয়ে যাছ। শামীম ভাই আমাকে ফোন করছিলো। আমি বলছি, ভাই আপনি যদি বলেন কালকে থেকে হকার বসবে না বঙ্গবন্ধু রোডে, তাহলে আর একজনও বসবে না। আপনি খালি এইটা বলেন দাঁড়িছে। 

শামীম ভাই এইটা বলবে না, কিন্তু বললে আসলেই থাকতো না। ওরা কই পালায়া যাবে খুঁজেও পাবে না। সেলিম ভাই আমাকে বারবার বলেন মাথা ঠাণ্ডা করার জন্য, আমি মোটেই মাথা গরম করছি না। আর সিদ্ধিরগঞ্জে লেক ও পানি সংরক্ষণ করছি বলেই নারায়ণগঞ্জ বেঁচে থাকবে। সেনাবাহিনী কাজ শেষ করলেই যেখানে যেখানে ড্রেন কানেক্টেড করা দরকার, সেগুলো আমরা করবো।

নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বিল্লাল হোসেন রবিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু চন্দন শীল, সাবেক এমপি হোসেনে আরা বাবলী, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেদারুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জীবন, বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ, নাসিক কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু, মাকসুদুর আলম খন্দকার খোরশেদ, অসিত বরণ, মনিরুজ্জামান মনির, বিভা হাসান, বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মুহাম্মদ মহসীন মিয়া, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ সহ অনেকেই।